india in the persianate age

India in the Persianate Age: 1000-1765 Review

India in the Persianate Age: 1000-1765 Review

সমালোচকঃ স্থপতি তৌফিক রহমান খান, প্রধান স্থপতি, মেট্রোপলিস আর্কিটেক্টস

সম্প্রতি পড়েছি India in the Persianate Age: 1000-1765, By Richard M. Eaton, বইটি। ইতিহাস পাঠ যে এমন রোমাঞ্চকর হতে পারে তা বোদ্ধা পাঠক বইটি হাতে নিলেই টের পাবেন। ভারতবর্ষ সম্পর্কে অনেকগুলো প্রচলিত ধারণাকে তথ্য উপাত্ত এবং যুক্তির বিন্যাসে লেখক খন্ডন করেছেন তাঁর অসীম জ্ঞ্যান ও প্রজ্ঞার আলোকে। বইটির আলোচ্য সময়কাল ১০০০ থেকে ১৭৬৫ সাল পর্যন্ত প্রায় আটশত বছরের ইতিহাস। কলোনিয়াল ইতিহাসবিদগণ আমাদের শিখিয়েছিলেন ব্রিটিশরা আসার পূর্ব পর্যন্ত এই দীর্ঘ সময়কাল ভারতবর্ষ একটি স্ট্যাগনান্ট বা জড়বৎ সভ্যতা হিসেবেই স্থবির হয়ে ছিলো, আরো মনে করা হতো বাইরের পৃথিবী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ভারতবর্ষ সংস্কৃত সভ্যতাকে কেন্দ্র করেই আবর্তিত হচ্ছিলো। কিন্তু ইটন এই ভ্রান্ত ধারণা ভেঙে দিয়ে দেখান সংস্কৃত ও পার্সি ভাষা, সাহিত্য তথা সংস্কৃতির মেলবন্ধনে কত ডাইনামিক এবং বৈচিত্র্যময় ছিলো এই সময়কাল।

২৪% ছাড়ে বইটি অর্ডার করতে ক্লিক করুন https://rkmri.co/eM2MReIEee5A/

india in the persianate age
তৈমুর লং এর দিল্লি আক্রমণের পর কিভাবে বঙ্গ ও দাক্ষিণ্যাত্যসহ বিভিন্ন অংশে অঞ্চলিক শাসন বা স্থানীয় সালতানাতের বিকাশ ঘটে, সংস্কৃত ও পার্সির পাশাপাশি স্থানিয় বা ভার্নাকুলার ভাষা-সাহিত্য বিকাশের প্রেক্ষিত তৈরি হয় তার প্রাঞ্জল বর্ণনা আছে বইটিতে।

১৯৪৭ এর দেশ ভাগের পর মূলত ধর্মীয় বিবেচনাতেই আধুনিক ভারতবর্ষের রাষ্ট্রিয় পূনর্বিন্যাস ঘটে অথচ ব্রিটিশ শাসনের আগে এরূপ ধর্মীয় বিভাজনের ভিত্তিতে ভারতীয় সমাজকে দেখার প্রচলন ছিলোনা। ধর্মীয় দৃষ্টিতে ভারতীয় উপমহাদেশকে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি একটি কলোনিয়াল প্রজেক্ট।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থাপত্য অনুষদে দ্বিতীয় বর্ষে পড়ার সময় ই.এইচ. গমব্রিচের “স্টোরি অফ আর্ট” বইটি পাশ্চাত্য শিল্পের ইতিহাসের প্রতি প্রচন্ড আগ্রহী করে তুলেছিলো এর উপস্থাপনার গভীরতা ও চমৎকারিত্ত্বে। কতবার বইটি পড়েছি তার ইয়ত্তা নেই। আঠাশ বছর পর ইটনের এই বই হাতে নিয়ে তেমনি রোমাঞ্চ বোধ করছি। তবে গমব্রিচ যেমন ভারতীয় শিল্প-স্থাপত্যকে এক প্যারাগ্রাফে উড়িয়ে দিয়েছিলেন এই বলে যে গত দুহাজার বছরে তার তেমন রূপান্তর ঘটেনি। ইটন সাহেব গমব্রিচের এই থিসিসে কুঠারাঘাত করেছেন ভারতব্যাপি ছড়িয়ে থাকা স্থাপত্যের অসংখ্য উদাহরণ ও তাদের পর্যালোচনা করে। সেই বিচারে এই বইটি স্টোরি অফ আর্টের ঐ দাবির একটা এ্যান্টি থিসিস।

india in the persianate age
বইটিতে উল্লেখিত ম্যাপ (৯৭৫-১২০০ শতকের রাজবংশ)

আধুনিককালের নন্দিত ও নিন্দিত মার্কিন পন্ডিত স্যামুয়েল হান্টিংটনের ‘ক্ল্যাশ অফ সিভিলাইজেশন’ বই টির সাথে যারা পরিচিত তারাও দেখবেন ইটন কিভাবে হানটিংটনের দাবিকে অসার করে তুলেন।

বইটির একটি বড় অংশ জুড়ে আছে বঙ্গের ইতিহাস। মধ্যযুগের সুলতানী ও মোঘল আমলের বাংলার সমাজ, সংস্কৃতি, সাহিত্য, স্থাপত্য বোঝার জন্য বইটি একটি অমূল্য সংযোজন।

ভালো বইয়ের চেয়ে ভালো বন্ধু সত্যিই নেই।


২৪% ছাড়ে বইটি অর্ডার করতে ক্লিক করুন https://rkmri.co/eM2MReIEee5A/


আরো বই পরিচিতিঃ ডিজাইন রীতি ও স্থাপত্যধারা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *