আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র বাধ্যতামূলক করা হয়েছে

আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র বাধ্যতামূলক করা হয়েছে

২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে ৩৮ ধরনের সেবা পেতে আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এর আগে এই সেবা সমুহ গ্রহন করতে e-TIN সার্টিফিকেট জমা দিয়েই পাওয়া যেত।

স্থপতি ও প্রকৌশলীদের কেউ পেশাজীবী সংগঠনের (IAB, IEB) সদস্য হলে তার আয়কর রিটার্ন দাখিল বাধ্যতামূলক। আবার স্থপতি ও প্রকৌশলীদের কেউ পেশাজীবী সংগঠনের সদস্য হবার জন্য আবেদন করলেও আবেদনকারীকে বাধ্যতামূলক আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র জমা দিতে হবে।

কোন স্থপতি বা প্রকৌশলী পরামর্শক সেবা দিয়ে অর্থ গ্রহণ করতে চাইলেও তাকে আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র বাধ্যতামূলকভাবে দাখিল করতে হবে

RAJUK, CDA, KDA, RDA এলাকায় কোন ব্যক্তি নকশা অনুমোদনের আবেদন করলে আবেদনপত্রের সঙ্গে রিটার্ন জমার প্রমাণপত্র দিতে হবে।

সিটি কর্পোরেশন বা পৌর এলাকায় ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তি ও নবায়ন করতে হলে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে। তবে এর বাইরের অন্যান্য এলাকায় এই নিয়ম প্রস্তাব করা হয়নি।

পণ্য সরবরাহের ঠিকাদারি কাজে টেন্ডার জমা দিতে হলে আয়কর রিটার্ন জমার প্রমাণ দিতে হবে। তাতে ব্যর্থ হলে ৫০ শতাংশ হারে উৎসে কর কর্তন করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এছাড়াও আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র বাধ্যতামূলক করা হয়েছে আরো যে সমস্ত সেবার ক্ষেত্রে সেগুলো হলো
গাড়ি ক্রয় ও মালিকানা পরিবর্তন, সঞ্চয়পত্র ক্রয়, ব্যাংক ঋণ, ব্যাংক জমার সুদ আয় থেকে উৎস কর কর্তনে, জমি-ফ্ল্যাট ক্রয়, ক্রেডিট কার্ড গ্রহণ, ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে পড়ানো, গ্যাসের সংযোগ, বিদ্যুৎ সংযোগ, বাড়িভাড়া, এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের আয়, জনপ্রতিনিধি, ফান্ডের রিটার্ন, ডিজিটাল পণ্য ও সেবা, মোবাইল ব্যাংকিংএর কমিশন গ্রহনের ক্ষত্রেও এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

এছাড়া

  • ডাক্তার, আইনজীবী, চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ইত্যাদি পেশাজীবী সংগঠনের সদস্য হলে বা সদস্য হতে চাইলে
  • ক্যাটারিং, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, জনবল বা নিরাপত্তা সেবা দিয়ে অর্থ গ্রহণ করতে
  • বিবাহ নিবন্ধক বা কাজী হিসাবে লাইসেন্স পেতে চাইলে
  • আমদানি-রপ্তানির সনদ পেতে চাইলে
  • আমদানির এলসি খুলতে চাইলে
  • কোম্পানি পরিচালক বা শেয়ারহোল্ডার পদ পেতে হলে
  • ব্যবসা বা বাণিজ্য সংগঠনের বা সমিতির সদস্যপদ গ্রহণ
  • বীমা কোম্পানির এজেন্ট হিসাবে তালিকাভুক্তি বা নবায়ন করতে হলে
  • বীমা বা সার্ভেয়ার হিসাবে নিবন্ধন নিতে হলে
  • অস্ত্রের লাইসেন্স নেয়ার আবেদন করলে
  • ওষুধ ব্যবসার জন্য ড্রাগ লাইসেন্স থাকলে বা করাতে চাইলে, অগ্নি-নিরাপত্তা লাইসেন্স, পরিবেশ ছাড়পত্র, বিএসটিআই লাইসেন্স পেতে চাইলে
  • লঞ্চ, স্টিমার, ট্রলার, কার্গো, বার্জ ইত্যাদি নৌযানের সার্ভে সার্টিফিকেটের জন্য
  • ইটভাটার অনুমোদন নিতে হলে
  • পরিবহন সেবার ব্যবসা করলে
  • কোন কোম্পানির ডিস্ট্রিবিউটর বা এজেন্টশিপ চাইলে
  • এনজিও বা মাইক্রো ক্রেডিট সংস্থার জন্য বিদেশি অনুদানের ছাড় দেয়ার ক্ষেত্রে

কোন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান যদি আবেদনকারীর কাছ থেকে আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণপত্র সংগ্রহ ব্যতিরেকে সেবা প্রদান করে তবে সেই সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানকে ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

তবে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড একটি সাধারণ বা বিশেষ আদেশের মাধ্যমে যে কাউকে আয়কর রিটার্নের প্রমাণপত্র জমা দেয়া থেকে অব্যাহতি দিতে পারে বলে বাজেটে উল্লেখ করা হয়েছে।

—- আর্কবাংলা ডেস্ক